বুধবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ০৩:০৪ অপরাহ্ন

ঘোষণা -:
নিউজ ৭১ অনলাইন ২০১১সাল থেকে নিয়মিত প্রকাশ হচ্ছে।।গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের নিয়ম মেনে তথ্য মন্ত্রণালযয়ে আবেদিত। আবেদিত নিবন্ধন সিরিয়াল নং ৯৩, নিউজ৭১অনলাইন সংক্রান্ত কোন প্রশ্ন থাকলে মোবাইল ঃ- ০১৭১৪২৭৭৬৮,০১৭১০-৯৫৯৮৯৫ অথবা  [email protected] ই-মেইল এ যোগাযোগ করতে পারেন

ad 02



স্বার্থপর রাজনীতির চক্রঃ হুমায়ূন রশীদ কিংবা সাইফুর রহমান থেকে আবুল মাল আব্দুল মুহিত

স্বার্থপর রাজনীতির চক্রঃ হুমায়ূন রশীদ কিংবা সাইফুর রহমান থেকে আবুল মাল আব্দুল মুহিত



(আমি আছি, জনাব আবুল মুহিতের হুইল চেয়ার পুশ করার জন্য)
———————————————————————
আশি বৎসর+ বয়সী কর্মবীর, দেশপ্রেমী সজ্জন মানুষ সাবেক অর্থমন্ত্রী আমার অত্যন্ত প্রিয়, সম্মানিত ব্যক্তিত্ব। যার শিক্ষা ও কর্মজীবন আলোকিত। দেশ নিয়ে উনি স্বপ্ন দেখেছিলেন। বাজেটে উনার স্বপনের প্রতিফলন ছিল। এর আকার বাড়াতে সাহসী সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রতিবার। দশ বছরে বাজেটের আকার বেড়েছে কয়েকগুণ (Xডবল ফিগার)। তাঁর আমলে ব্যাংক ঋণের অনেক টাকা অপাত্রে গেছে; এর দায় হুট করে অর্থমন্ত্রীকে করা যাবেনা। ঐসব ব্যাংকের ঋণ বিতরণ প্রক্রিয়া – তাদের ম্যানেজমেন্ট, বোর্ড এরপর বাংলাদেশ ব্যাংক হয়ে অর্থমন্ত্রীকে পাবে। হুট করেই অর্থমন্ত্রী এ প্রক্রিয়ায় ঢুকে যেতে পারেন না, এমন কি বাংলাদেশ ব্যাংকও একটা টাইম/পর্বের আগে ঢুকতে পারেনা বা জানতে পারেনা। দায়ী করতে হলে করতে হবে ব্যাংকের ঐসব প্রক্রিয়ায় নিয়োগপ্রাপ্ত মানুষদের (বোর্ড মেম্বার/পরিচালক ইত্যাদি) সরকারী নিয়োগে কারা প্রস্থাবক ছিল, তাদের।
আমাদের দেশের রাজনীতি বড়ই নির্মম, স্বার্থপর হয়ে গেছে। আখের গোছানো মানুষের আনাগোনা খুবই বেশী। জনাব মুহিতকে নিয়ে করা এই রিপোর্ট কতটুকু সত্য জানিনা – রাজনীতির মানুষ কেন, তাঁর পরিবার পরিজন কম বড় নয়, উদাসীনও নয়। একটা ঐতিহ্যবাহী পরিবারের মানুষ উনি। উনার হুইল চেয়ার ঠ্যালানোর মানুষ তাঁর পরিবার, পরিজনদের মাঝে বিস্তর আছে; এরা ওতটা দায়িত্বহীনও নয়। হয়তো প্রতিবার উনি বিমানবন্দরে এলে রাজনৈতিক মানুষদের যে ভিড় জমতো এবার তা ছিলোনা। সাংবাদিক হয়তো এটা বলতে চেয়েছে কিন্তু খাশলত বশতঃ শিরোনাম করেছে, অর্থমন্ত্রীর হুইল চেয়ার ঠ্যালানোর মানুষ নেই। রাবিশ আর খবিশ এমনি এমনি বলেন নি তো উনারা! উনাকে সাংবাদিক জিজ্ঞেস করলো ঋণের এত টাকা বেহাত হলে ব্যাংকিং সিস্টেম কলাপ্স করবে কি না? উনি বললেন আমাদের ব্যাংকগুলো যে ঋণ দেয় এটা তার ফ্রাকশন মাত্র – এ অর্থে এটি সামান্য টাকা; এর জন্য ব্যাংকিং ব্যবস্থা ভেংগে পড়ার কিছু নেই। সাংবাদিক খবিশ লিখলো, ‘অর্থমন্ত্রী বলেছেন, এটা সামান্য টাকা’! যেটা বলছিলাম, আমাদের দেশের রাজনীতি স্বার্থপর, নির্মম। জনাব হুনা্যূন রশীদের মৃত্যু বার্ষিকী সম্পর্কে একটা রিপোর্ট পড়েছিলাম, ‘নিরবে কেটে গেলো প্রয়াত হুমায়ূন রশিদের মৃত্যু বার্ষিকী’! এ রকম অবস্থা প্রয়াত অর্থমন্ত্রী এম সাইফুর রহমানের ক্ষেত্রেও। কিবরিয়া, কিংবা সামাদ আজাদ, সকলের অবস্থাই কম বেশী এমন। আসলে এই কদর্য রাজনীতি তখনও ছিল, এখনও আছে। ক্ষমতায় থাকলে মধুকরের অভাব হয়না। তবে যেটা আমাদের জানার দরকার তা হলো, হুমায়ূন রশীদ, আবুল মুহিত কিংবা সাইফুর রহমান এরা এসব কদর্য, সুযোগ সন্ধানী, ভাগ্যগড়ার রাজনীতি করেন না। তাঁরা সৌভাগ্যের বরপুত্র হয়ে জন্মেছিলেন।
ব্যক্তিগতভাবে আমি একটা প্রস্তাব করবো, জনাব আবুল মুহিতের বিদেশ সফরকালে যদি তাঁর হুইল চেয়ার পুশ করার মানুষ না থাকে, আমাকে নিতে পারেন। দেশে বা বাইরে না পারি, লন্ডন এলে আমাকে ডেকে নেবেন। আমি সসম্মানে উনার হুইল চেয়ার পুশ করবো।
———————–
জাহাংগীর মাহমুদ
যুক্তরাজ্য
১৮ জানুয়ারী ২০১৯

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন



ad03






– প্রধানমন্ত্রীর ১০টি বিশেষ উদ্যোগ বিষয়ক ই-বুক –

নিউজ ৭১ অনলাইন ২০১১সাল থেকে নিয়মিত প্রকাশ হচ্ছে।। আবেদিত নিবন্ধন সিরিয়াল নং ৯৩
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Don`t copy text!