বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮, ০৫:৪০ অপরাহ্ন

উচ্চকক্ষের নিয়ন্ত্রণ ধরে রেখেছে ট্রাম্পের দল

উচ্চকক্ষের নিয়ন্ত্রণ ধরে রেখেছে ট্রাম্পের দল

যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যবর্তী নির্বাচনে দেশটির পার্লামেন্টের (কংগ্রেস) নিম্নকক্ষ দখলে নিতে সক্ষম হয়েছে বিরোধী ডেমোক্রেটিক পার্টি। এই ফল প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিপর্যয় সৃষ্টি করবে বলেই আশঙ্কা করা হচ্ছে। এতে আইনসভায় নিজের এজেন্ডা বাস্তবায়নের সুযোগ হারালেন ট্রাম্প। তবে কংগ্রেসের উচ্চকক্ষের নিয়ন্ত্রণ ধরে রাখতে পেরেছে ট্রাম্পের দল রিপাবলিকান পার্টি। ফলে বিচার ও নির্বাহী বিভাগে নিয়োগের ক্ষমতা নিজের হাতেই থাকল ট্রাম্পের। এবারের নির্বাচনও মার্কিনদের ঐতিহাসিক প্রবণতাকেই অক্ষুণ্ন রাখল, যে দল হোয়াইট হাউসে নেই তারাই মধ্যবর্তী নির্বাচনে জয়লাভ করে।

মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত মধ্যবর্তী নির্বাচনে কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভের (প্রতিনিধি পরিষদ) ৪৩৫ আসনের সব কটিতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে গত রাতে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ডেমোক্রেটিক পার্টি ২২২ আসনে জয়লাভ করে, যেখানে সংখ্যাগরিষ্ঠতার জন্য প্রয়োজন ২১৮টি আসন। এতে ক্ষমতাসীন রিপাবলিকানরা জয় পেয়েছে ১৯৯টি আসনে। তখনো ফল ঘোষণার বাকি ছিল ১৪টি আসনের, যার বেশির ভাগ আসনেই ডেমোক্রেটিকরা এগিয়ে ছিল। এই জয়ের ফলে আট বছর পর কংগ্রেসের নিম্নকক্ষের নিয়ন্ত্রণ ফিরে পেল ডেমোক্র্যাটরা।

অন্যদিকে কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ ১০০ আসনের সিনেটে রিপাবলিকান পার্টি জয়লাভ করে ৫১টি আসনে। আর ডেমোক্রেটিক পার্টি পেয়েছে ৪৫টি আসন। ফল ঘোষণার বাকি ছিল চারটি আসনে। এর মধ্যে তিনটি আসনে এগিয়ে ছিল রিপাবলিকান পার্টি। এর ফলে সিনেটে সংখ্যাগরিষ্ঠতা আরো বাড়তে (৫১টি থেকে ৫৪টিতে) যাচ্ছে রিপাবলিকানদের।

এই ফল ওয়াশিংটনে ক্ষমতার ভারসাম্যকে উল্টে দিল। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ২০১৬ সালের নির্বাচনে জয়লাভ করার পর থেকে এত দিন পার্লামেন্টের দুটি কক্ষেই রিপাবলিকানদের সংখ্যাগরিষ্ঠতা উপভোগ করে আসছিলেন। কিন্তু এখন ডেমোক্র্যাটরা ট্রাম্পের যেকোনো ধরনের আইনি উদ্যোগ আটকে দিতে পারবে এবং ২০১৬ সালের নির্বাচনে ট্রাম্পের অস্বচ্ছ অর্থায়ন ও রুশ হস্তক্ষেপের বিষয়ে ট্রাম্পের চাপা দিয়ে রাখা তদন্তে আলো ফেলতে পাড়বে। এমনকি তাদের এই জয় ট্রাম্পকে ইমপিচমেন্টের দিকেও নিয়ে যেতে পারে।

হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসে পরাজিত হলেও সিনেটে ট্রাম্পের দলের জয়লাভ খুবই তাৎপর্যপূর্ণ। সিনেটের নির্বাচনে ইন্ডিয়ানা, মিশৌরি ও নর্থ ডাকোটায় রিপাবলিকান প্রতিদ্বন্দ্বীদের কাছে ধরাশায়ী হয়েছেন তিন ডেমোক্র্যাট সিনেটর। ফ্লোরিডার ডেমোক্রেটিক সিনেটর বিল নেলসনও পরাজিত হতে যাচ্ছেন বলে গণমাধ্যমের খবরে জানা গেছে। আলোচিত ডেমোক্রেটিক সিনেটর জো ডানলির কাছ থেকে সিনেটর আসন ছিনিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছেন রিপাবলিকান মাইক ব্রাউনও।

ব্যাপক উৎসাহের মধ্য দিয়ে মার্কিনরা মধ্য নির্বাচনে হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভস, সিনেট ও ৩৬টি গভর্নর পদে ভোট দেয়। নির্বাচনী কেন্দ্রগুলোর সামনে দ্রুত লম্বা লাইন তৈরি হতে দেখা যায়। এ  দৃশ্য দেখা গেছে নিউ ইয়র্ক থেকে ক্যালিফোর্নিয়া ও মিশৌরি থেকে জর্জিয়া পর্যন্ত। নির্বাচনের ফলাফল হোয়াইট হাউসে থেকেই দেখছিলেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তিনি সেখানে সারা দিন তাঁর পরিবার ও বন্ধুদের সঙ্গে কাটান।

সিনেটে যা-ই ঘটুক, হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসে জয়লাভ খুবই তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে ডেমোক্রেটিক পার্টি। নতুন হাউসে দ্বিতীয়বারের মতো স্পিকার হতে যাওয়া হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসে ডেমোক্রেটিক নেতা ন্যান্সি পেলোসি ভোট গণনা চলাকালে মঙ্গলবার রাতেই সমর্থকদের নিয়ে উল্লাস প্রকাশ করেন। তিনি সমর্থকদের উদ্দেশে বলতে থাকেন, ‘আপনাদের ধন্যবাদ। আগামীকাল হবে আমেরিকার একটি নতুন দিন।’ প্রসঙ্গত, ডেমোক্র্যাট নেত্রী ন্যান্সি ২০০৭ থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত হাউসের স্পিকার ছিলেন।

এই জয়ের ফলে ডেমোক্র্যাটরা এখন ট্রাম্প প্রশাসন ও তাঁর বাণিজ্য বিষয়াদি তদন্ত করতে পারবে। ট্যাক্স রিটার্নে তাঁর বিতর্কিত সুদহারও এর আওতায় আসতে পারে। এ ছাড়া তারা ট্রাম্পের আইনসভাসংক্রান্ত যেকোনো উদ্যোগ কার্যকরভাবে আটকে দিতে পারবে। এতে মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, তা-ও বাধার মুখে পড়বে।

নারী প্রার্থীদের অগ্রগতি : এবারের নির্বাচনটি ছিল নারীদের জয়লাভের জন্য একটি রেকর্ডের বছর। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত কমপক্ষে ৯০টি আসনে জয়লাভ করেন নারী প্রার্থীরা। নিঃসন্দেহে তাঁদের বেশির ভাগই ডেমোক্রেটিক পার্টির। জয়ী ৯০ জন নারী প্রার্থীর মধ্যে ২৮ জন প্রথমবারের মতো হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসে প্রবেশ করতে যাচ্ছেন। তাঁদের মধ্যে দুই মুসলিম নারীও রয়েছেন। তাঁরা হচ্ছেন সুদানি বংশোদ্ভূত ইলহান ওমর এবং ফিলিস্তিনি বংশোদ্ভূত রাশিদা তালিব। এ ছাড়া মাত্র ২৯ বছর বয়সে দুই ডেমোক্রেটিক তরুণী হাউসের নির্বাচনে জয়লাভ করেছেন, যা হাউসের সবচেয়ে কম বয়সী সদস্য হওয়ার রেকর্ড। সূত্র : এএফপি, বিবিসি, ইভনিং স্ট্যান্ডার্ড।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

বিজ্ঞাপনের জণ্য ০২২




– প্রধানমন্ত্রীর ১০টি বিশেষ উদ্যোগ বিষয়ক ই-বুক –

© All rights reserved © 2018 news71online.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com