নিউজ রুম এডিটর, নিউজ৭১অনলাইন

জনশক্তি প্রেরণ খাতে দুনীর্তি, হয়রানি ও অনিয়ম বরদাশত করা হবে না

অভিবাসন ব্যয় কমানো, ভিসা ট্রেডিং বন্ধ করা, নতুন শ্রমবাজার তৈরি করা, দক্ষ কর্মী প্রেরণ, ডায়াসপোরাদের সম্পৃক্ত করা, নারী কর্মীদের
সুরক্ষাসহ অভিবাসী কর্মীদের সার্বিক নিরাপত্তা ও কল্যাণ বিধান করাই বর্তমান সরকারের মূল লক্ষ্য। অভিবাসন খাতে এ বছর রেকর্ডসংখ্যক
৯ লাখ ৬৪ হাজার কর্মীর বিভিন্ন দেশে কর্মসংস্থান, অনলাইন ভিসা চালু, কর্মী প্রেরণে ডিজিটালেইজেশন পদ্ধতির ব্যবস্থা, স্মার্ট কার্ড
প্রবর্তনসহ অভিবাসন কূটনীতিতে উল্লেখযোগ্য সাফল্য অর্জিত হয়েছে। তারপরেও অভিবাসন ব্যয় কমিয়ে আনাসহ নানামুখী চ্যালেঞ্জ
মোকাবিলায় সরকার সমন্বিতভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বিদেশে কর্মী প্রেরণে অতিরিক্ত অর্থ আদায় দুনীর্তি, অনিয়ম, হয়রানি ও প্রতারণা
বরদাশত করা হবে না। আজ ১৩ বুধবার ডিসেম্বর, সকালে ফার্মগেইটস্থ দি ডেইলি স্টারের সেমিনার হলে ডিবেট ফর ডেমোক্রেসি আয়োজিত
‘অভিবাসন কূটনীতি: সাফল্য, সীমাবদ্ধতা ও করণীয়’ শীর্ষক এক সংলাপে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি
প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। সংলাপটি আয়োজনে সহযোগিতা করে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি। সেমিনারে মূল
প্রতিপাদ্য উপস্থাপন করেন ডিবেট ফর ডেমোক্রেসি’র চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ। সংলাপে আরও বক্তব্য রাখেন ইসরাফিল
আলম এমপি, সাবেক রাষ্ট্রদূত হুমায়ুন কবির, ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক ড. কে.এম মহসিন, বিএমইটির
মহাপরিচালক সেলিম রেজা, বিএমইটির পরিচালক (প্রশিক্ষণ) ড. মোঃ নুরুল ইসলাম, প্রমূখ। সংলাপটি সঞ্চালনা করেন ন্যাশনাল ডিবেট
ফেডারেশনের মহাসচিব মোস্তাফিজুর রহমান খান।
মূল প্রতিপাদ্য উপস্থাপনায় ডিবেট ফর ডেমোক্রেসি’র চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ বলেন, ২০১১ সালে ঢাকায় কলম্বো প্রসেস,
ডিএফএমডি শীর্ষক সম্মেলন আয়োজন, ২৯টি দেশে লেবার এটাচি নিয়োগ, কয়েকটি দেশের সাথে স্বল্প ব্যয়ে বা বিনা খরচে জিটুজি পদ্ধতিতে
শ্রমিক প্রেরণসহ বিভিন্ন দেশে আনডকুমেন্টেড বাংলাদেশী কর্মীদের ডকুমেন্টেড করা অভিবাসন কূটনীতিতে বেশ বড় সাফল্য বয়ে এনেছে।
কিন্তু তারপরও কর্মী প্রেরণে নিয়ন্ত্রিত অভিবাসন ব্যয় নির্ধারণ করাটাই সরকারের জন্য এখনও সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। বিদেশে বাংলাদেশী
শ্রমিকদের বেশিরভাগেরই পরিচয় এখনো থ্রী ‘ডি’-এর মধ্যে সীমিত, যার মানে উরৎঃু, উঁংঃ ধহফ উধহমবৎড়ঁং. কার্যকর অভিবাসন
কূটনীতিই আমাদের অভিবাসী শ্রমিকদেরকে এই পরিস্থিতি থেকে মুক্ত করতে পারে। অভিবাসী কর্মী সুরক্ষা, শোভন কাজ, নিরাপদ আবাসন,
কাজ শেষে দেশে ফিরে আসার সুব্যবস্থা, স্বাস্থ্যঝুঁকিসহ শ্রমঅধিকার নিশ্চিত করা জরুরি। এই পরিস্থিতির উত্তরণে কিরণ আরো বলেন, বিভিন্ন
দেশে বাংলাদেশীদের অভিবাসন প্রকৃতি, অভিবাসীদের পেশাগত নিরাপত্তা, অভিবাসন ব্যয়, কর্মীদের মজুরী, অধিক সংখ্যক পেশাজীবি
প্রেরণ, নতুন শ্রমবাজার অনুসন্ধান ইত্যাদিকে বিবেচনায় রেখে ৫ বছর মেয়াদী গরমৎধঃরড়হ উরঢ়ষড়সধপু চষধহ তৈরি ও তার বাস্তবায়ন
করতে হবে। এই লক্ষ্যে প্রবাসী কল্যাণ, পররাষ্ট্র ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্টদের যৌথভাবে কর্ম পরিকল্পনা ঠিক করে এগিয়ে যেতে হবে।
প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী আরও বলেন, সরকারের সফল অভিবাসন কূটনৈতিক তৎপরতার ফলে বন্ধ থাকা জর্ডানে নারী কর্মী প্রেরণ, সৌদি আরব,
মালয়েশিয়ায় শ্রমবাজার উন্মুক্ত করা সম্ভব হয়েছে। জিটুজির আওতায় জাপান, কোরিয়া ও মালয়েশিয়ায় খুবই স্বল্পব্যয়ে কর্মী পাঠানো হয়েছে।
এ ছাড়াও নতুন নতুন শ্রমবাজার খোঁজা হচ্ছে। ২০১৬ সালের ডিসেম্বরে নবম জিএফএমডির চেয়ার হিসেবে বাংলাদেশ ঢাকায় সম্মেলনের
আয়োজন করে অভিবাসন কূটনীতিতে বিরাট সাফল্য অর্জন করেছে। যে সম্মেলনে ৭ শতেরও বেশি ডেলিগেট অংশগ্রহণ করে। আবুধাবি
ডায়ালগ, কলম্বো প্রসেস, বুদাপেস্ট প্রসেস, কমপ্যাক্ট অন মাইগ্রেশনের প্রস্তুতি গ্রহণ করতে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় অগ্রণী ভূমিকা পালন
করেছে।
সাবেক রাষ্ট্রদূত হুমায়ুন কবীর বলেন, জনসংখ্যার প্রাচুর্যময় দেশ বাংলাদেশ। দেশে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বৃদ্ধি পেলেও সেই অর্থে কর্মসংস্থান
বাড়েনি। আমাদের কর্মসংস্থান বৃদ্ধির জায়গাই হলো বিশ^পরিমন্ডল। বিশ^শ্রমবাজারে জায়গা করে নিতে হলে দক্ষ জনশক্তি তৈরিকে অগ্রাধিকার
দিতে হবে। তিনি আরও বলেন, বিশ^ শ্রমবাজারে বাংলাদেশের শ্রমিকের দক্ষতা নিয়ে যে ভাবমূর্তি তৈরি হয়েছে সেটা মোকাবিলা করতে
হবে। তবে সরকারের সামগ্রিক কাঠামোর মধ্যে সুশাসন আনতে না পারলে শ্রম অভিবাসন খাতে আমাদের লক্ষ্যই অর্জন করা দূরহ হয়ে
দাঁড়াবে।
বিএমইটির মহাপরিচালক সেলিম রেজা বলেন, বিশ^ শ্রমবাজারে বাংলাদেশের অবস্থান মজবুত করতে হলে দক্ষ জনশক্তি তৈরি এবং পাঠানোর
বিকল্প নেই। অভিবাসনের ক্ষেত্রে যত ঝুঁকিই আসুক সেটা মোকাবেলার প্রথম প্রস্তুতিই হলো দক্ষ জনশক্তি তৈরি। প্রশিক্ষণ ছাড়া কর্মীরা যাতে
বিদেশে না যায় এ বিষয়ে জনগণকে আরো বেশি সচেতন করতে হবে। অভিবাসন নিয়ে সবাইকে এক সাথে কাজ করতে হবে।
সংলাপে উন্নয়ন কর্মী, গণমাধ্যম কর্মীসহ ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, প্রাইম ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অফ বিজনেস এন্ড
টেকনোলজি (বিইউবিটি) শিক্ষার্থী ও শিক্ষকসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে শেষে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন করেন ডিবেট ফর
ডেমোক্রেসি’র পরিচালক জাহিদ রহমান।
ক্যাপশন-১: অভিবাসন কূটনীতি শীর্ষক সংলাপে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি, মূল প্রতিপাদ্য উপস্থাপক ডিবেট ফর ডেমোক্রেসি’র চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ
চৌধুরী কিরণ, সাবেক রাষ্ট্রদূত হুমায়ুন কবির, বিএমইটির মহাপরিচালক সেলিম রেজা সহ অন্যান্যরা।
ক্যাপশন-২: চলতি বছর রেকর্ড সংখ্যক জনশক্তি প্রেরণের স্বীকৃতি স্বরূপ প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি সম্মাননা স্বারক প্রদান করছেন ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ।প্রেস রিলিজ

13.12.2017 | 07:24 PM | সর্বমোট ১৮৮ বার পঠিত

জনশক্তি প্রেরণ খাতে দুনীর্তি, হয়রানি ও অনিয়ম বরদাশত করা হবে না" data-width="100%" data-numposts="5" data-colorscheme="light">

জাতীয়

রাজধানী

চট্টগ্রাম

ফেইসবুকে নিউজ ৭১ অনলাইন

ধর্ম

নব্য নাস্তিক মো: সোলায়মানের কঠিন শাস্তির দাবীতে মুসল্লিদের মানববন্ধন;এলাকায় চরম উত্তেজনা

নব্য নাস্তিক মো: সোলায়মানের কঠিন শাস্তির দাবীতে মুসল্লিদের মানববন্ধন;এলাকায় চরম উত্তেজনা ধার্মিক থেকে নাস্তিক; নামের সাথে ব্যবহৃত মুহাম্মাদ শব্দ কেটে...... বিস্তারিত

13.04.2018 | 03:59 PM

বিনোদন

নতুন দিনের কনর্সাটে ময়মনসিংহ মাতিয়েছে নগর বাউল লালন শিরোনামহীন

বিল্লাল হোসেন প্রান্ত , ২৩ এপ্রিল ময়মনসিংহ ॥৪ দিন পর আবারও মঞ্চ কাপিয়ে হাজারো তারুন্যেকে উন্মাদ করেছে নগর বাউল জেমস।...... বিস্তারিত

24.04.2018 | 12:58 AM

সর্বশেষ সংবাদ

সব পোস্ট

English News

সম্পাদকীয়

বিশেষ প্রতিবেদন

মানুষ মানুষের জন্য

আমরা শোকাহত

অতিথি কলাম

সাক্ষাৎকার

অন্যরকম

ভিডিওতে ৭১এর মুক্তিযোদ্ধের ইতিহাস

ভিডিও সংবাদ