নিউজ রুম এডিটর, নিউজ৭১অনলাইন

সাড়া দিচ্ছেন এটিএম শামসুজ্জামান

অভিনেতা এ টি এম শামসুজ্জামানের লাইফ সাপোর্ট খুলে দেওয়া হয়েছে। বরেণ্য এই অভিনেতার ছোট ভাই আলহাজ্ব সালেহ জামান সেলিম জানান, এ টি এম শাসুজ্জামানের শ্বাস নিতে কষ্ট হওয়ায় লাইফ সাপোর্টে নেয়া হয়েছিল। মূলত চিকিৎসা শুরুর কয়েক দিন পর তাঁকে লাইফ সাপোর্ট দেওয়া হয়। এরপর আবার স্বাভাবিক নিয়মে শ্বাস নিতে পারলে লাইফ সাপোর্ট খুলে দেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে চার দিন আগে তাঁকে আবার লাইফ সাপোর্ট দেওয়া হয়। 

শনিবার সকাল থেকেই তুলনামূলকভাবে ভালো আছেন এ টি এম শামসুজ্জামান। তাঁর লাইফ সাপোর্ট যন্ত্র খুলে দেওয়া হয়েছে। তিনি যথেষ্ট সাড়া দিচ্ছেন। সালাম দিলে হাসি দিয়ে জবাব দিচ্ছেন তিনি। 

রাজধানীর পুরান ঢাকায় গেন্ডারিয়ার আসগর আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন এ টি এম শামসুজ্জামান। 

হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রের (আইসিইউ)-৩ নম্বর বিছানায় আছেন এ টি এম শামসুজ্জামান। এ বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ক্রিটিক্যাল  কেয়ার বিশেষজ্ঞ মো. মতিউল ইসলাম জানান, তবে এখনো আমরা তাঁকে বিপদমুক্ত বলতে পারছি না। কেননা তিনি মূলত বার্ধক্যজনিত সমস্যায় ভুগছেন। এই অবস্থায় সমস্যা একটি অঙ্গ থেকে অন্য অঙ্গে ছড়িয়ে পড়ে। কেবিনে দেওয়ার আগে পর্যন্ত আমরা কোনোভাবে বিপদমুক্ত বলতে পারছি না।

গত ২৬ এপ্রিল রাতে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন এটিএম শামসুজ্জামান। মল-মূত্র বন্ধ হয়ে যায়। শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। ওইদিন রাত এগারোটার দিকে তাকে ভর্তি করা হয় রাজধানীর গেণ্ডারিয়ার আজগর আলী হাসপাতালে। শনিবার দুপুরে প্রায় তিন ঘণ্টার অপারেশন শেষে পর্যবেক্ষণে রাখা হয় এটিএম শামসুজ্জামানকে। এরপর অবস্থার আরো অবনতি হবে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয় কিংবদন্তি এই অভিনেতাকে।

এটিএম শামসুজ্জামান ১৯৪১ সালের ১০ সেপ্টেম্বর নোয়াখালীর দৌলতপুরে নানাবাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন। তবে তিনি জীবনের দীর্ঘ সময় কাটিয়েছেন পুরান ঢাকার দেবেন্দ্রেনাথ দাস লেনে। ১৯৬১ সালে পরিচালক উদয়ন চৌধুরীর বিষকন্যা চলচ্চিত্রে সহকারী পরিচালক হিসেবে সিনেমায় পা রাখেন। প্রথম কাহিনি ও চিত্রনাট্য লিখেছেন ‘জলছবি’ চলচ্চিত্রের জন্য। ছবির পরিচালক ছিলেন নারায়ণ ঘোষ মিতা। এ ছবির মাধ্যমেই অভিনেতা ফারুকের চলচ্চিত্রে অভিষেক। এ পর্যন্ত শতাধিক চিত্রনাট্য ও কাহিনি লিখেছেন।

অভিনেতা হিসেবে চলচ্চিত্র পর্দায় আগমন ১৯৬৫ সালের দিকে। ১৯৭৬ সালে চলচ্চিত্রকার আমজাদ হোসেনের ‘নয়নমণি’ চলচ্চিত্রে খলনায়কের চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে আলোচনা আসেন তিনি। ১৯৮৭ সালে কাজী হায়াত পরিচালিত ‘দায়ী কে’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান। এরপর রেদওয়ান রনি পরিচালিত ‘চোরাবালি’তে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব-চরিত্রের অভিনেতা বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান।

12.05.2019 | 08:46 PM | সর্বমোট ৩১৪ বার পঠিত

সাড়া দিচ্ছেন এটিএম শামসুজ্জামান" data-width="100%" data-numposts="5" data-colorscheme="light">

জাতীয়

শেষ হলো ৮ম এসএসইএএসআর আন্তর্জাতিক সম্মেলন

ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশ (ইউল্যাব) আয়োজিত ৮ম এসএসইএএসআর আন্তর্জাতিক সম্মেলন ২০১৯ এর আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি হলো। গত শনিবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে...... বিস্তারিত

17.06.2019 | 09:22 PM


রাজধানী

চট্টগ্রাম

চট্টলা এক্সপ্রেসে দুর্ধর্ষ ডাকাতি, যাত্রীদের সর্বস্ব লুট

ঢাকা থেকে চট্টগ্রামগামী চট্টলা এক্সপ্রেসে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ডাকাতরা ফেনী স্টেশন ছাড়ার পর একটি বগির ছাদে থাকা যাত্রীদের মারধর ও...... বিস্তারিত

13.06.2019 | 02:29 PM

ফেইসবুকে নিউজ ৭১ অনলাইন

ধর্ম

বিনোদন

মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ’র কবিতা-’আষাঢ় দিয়ে ধুয়ে নেব’

আষাঢ় দিয়ে ধুয়ে নেব**মোহাম্মদ শহীদুল্লাহপুড়ে যদি মনটা তোমারআষাঢ় দিয়ে ধুয়ে দেবদাহক জ্যৈষ্ঠমাস।দহনের সাঁড়াশী জুলুমকে গলায় ঝুলিয়ে আকাশ কাঁপায় চাতকের অনিরাপদ কন্ঠনালীসবুজের...... বিস্তারিত

17.06.2019 | 11:52 AM

সর্বশেষ সংবাদ

সব পোস্ট

English News

সম্পাদকীয়

বিশেষ প্রতিবেদন

মানুষ মানুষের জন্য

আমরা শোকাহত

অতিথি কলাম

সাক্ষাৎকার

অন্যরকম

ভিডিওতে ৭১এর মুক্তিযোদ্ধের ইতিহাস

ভিডিও সংবাদ